বাজেট নিয়ে সমস্যা, তবে স্মার্টফোন কিনবেন, নিশ্চয়ই সবার প্রথমে চোখ যাবে দেশীয় ওয়ালটন স্মার্টফোনের দিকে।  এবার বাজেট এর ভেতর যারা ফ্যাবলেট প্রকৃতির স্মার্টফোন চাচ্ছেন, তাদের জন্য ওয়ালটন নিয়ে এলো প্রিমো এনএইচ৪ (Primo NH4)।  এই ডিভাইসটির মূল আকর্ষণ ফুল স্ক্রিন ভিউ ধাঁচের ডিজাইন এর পাশাপাশি ৫.৭ ইঞ্চি বিগ ডিসপ্লে।

স্মার্টফোনটির এর সাথে পাওয়া যাবেঃ প্রথমত প্রিমো এনএইচ৪ ডিভাইসটি, একটি চার্জার এডাপ্টার, একটি (২.০) ইউএসবি কেবল, একটি ইয়ারফোন, ডিসপ্লেতে যুক্ত প্রটেকশন গ্লাস, একটি ওয়ারেন্টি কার্ড, একটি সেফটি ইন্সট্রাকশন এবং ব্যাক কভার।

একনজরেপ্রিমো এনএইচ৪ (Primo NH4)
অপারেটিং সিস্টেমএন্ড্রয়েড ৮.১ গো
মেমোরি১জিবি র‍্যাম, ৮ জিবি রম, ৬৪ জিবি পর্যন্ত এক্সটারনাল স্টোরেজ সাপোর্ট
প্রসেসর১.৩ গিগাহার্জ কোয়াড কোর প্রসেসর
ডিসপ্লে৫.৭ ইঞ্চি ১৮ঃ৯ রেসিও ফুল ভিউ (এফডাব্লিউভিজিএ) ডিসপ্লে
ক্যামেরা৫ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং রিয়ার ক্যামেরা যার সামনে পিছনে উভয় পাশেই থাকবে ফ্ল্যাশ
ব্যাটারি২৪০০ এমএএইচ লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি
দাম৪৯৯৯ টাকা

বডি

ডিভাইসটির উচ্চতা ১৩৩.৭ মিলিমিটার এবং এটি প্রসস্থ ৭৫ মিলিমিটার।    প্রিমো এনএইচ৪ ডিভাইসটি ৯ মিলিমিটার পুরু এবং ওজন প্রায় ১৫৮ গ্রাম ব্যাটারি সহ।  সম্পূর্ণ ডিভাইসকে পাওয়ার দিবে একটি ২৪০০ এমএএইচ লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি।  প্রিমো এনএইচ৪ ডিভাইসটি ডার্ক ব্লু, রেড এবং ব্ল্যাক (ডিপ নীল,লাল এবং কালো) কালারে পাওয়া যাবে।

ডিসপ্লে

ওয়ালটন এর বর্তমান সময়ের অন্যসব স্মার্টফোনের মত এতেও ফ্রন্ট প্যানেল জুড়ে থাকবে ২.৫ ডি কার্ভড গ্লাস।  এতে পাওয়া যাবে একটি ৯৬০*৪৮০ পিক্সেলের এফডাব্লিউভিজিএ-প্লাস (FWVGA+) ডিসপ্লে।  এর স্ক্রিন-সাইজ ৫.৭ ইঞ্চি (প্রায় ১৪.৪ সেন্টিমিটার)।

অপারেটিং সিস্টেম

স্মার্টফোনটিতে মেইন সফটওয়্যার হিসেবে থাকছে এন্ড্রয়েড ৮.১ গো অপারেটিং সিস্টেম।

হার্ডওয়্যার

গ্রাফিক্স প্রসেসিং ইউনিট হিসেবে এতে থাকছে মালি ৪০০ জিপিইউ, আমরা এই জিপিইউটি ওয়ালটনের প্রায় অনেক বাজেট স্মার্টফোনেই দেখেছি, আর তাদের ৪-৫ হাজার বাজেট রেঞ্জের ডিভাইসে এই জিপিইউটিই বেশি প্রাধান্য পেয়ে থাকে।  প্রসেসর হিসেবে তো থাকছে মিডিয়াটেক এর ১.৩ গিগাহার্জ কোয়াড কোর প্রসেসর।  যা দিয়ে টুকটাক ২ডি গেমস খেলে অবসর সময় গুলো পার হয়ে যাবে অনায়াসে।

স্মার্টফোনটিতে ইন্টারনাল স্টোরেজ পাওয়া যাবে ৮ জিবি যার মধ্যে প্রায় ৪ জিবি ফাকা পাওয়া যাবে।  আর ৬৪ জিবি পর্যন্ত এক্সটারনাল স্টোরেজ সাপোর্ট তো থাকছেই।  সম্পূর্ণ সিস্টেমকে ব্যাকআপ দিবে একটি ১ জিবি র‍্যাম।

রিয়ার ক্যামেরা

ডিভাইসটির রিয়ার প্যানেলে আছে একটি ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।  যার স্পেশাল ফিচার হল অটোফোকাস।  পাশাপাশি এতে পাওয়া যাবে একটি এলইডি ফ্ল্যাশ।

ফ্রন্ট ক্যামেরা

সেলফি লাভারদের জন্য সুখবর।  প্রিমো এনএইচ৪ ডিভাইসটির ফ্রন্ট প্যানেলেও থাকছে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।  আর অল্প আলোতে সুবিধার জন্য থাকছে একটি এলইডি ফ্ল্যাশ।

ক্যামেরা ইউআই

পরিশেষে

দাম হিসেবে এই ডিভাইসটির উল্লেখযোগ্য দিক হল এর ক্লাসি ডিজাইন।  ডিভাইসটির মিনিমাল ডিজাইন এবং বিগ ডিসপ্লে এটি কেনার জন্য গ্রাহকদের নিকট মূল কারন হতে পারে।  তবে ৪জি না থাকাটা এর একটি খারাপ দিক।