আমাদের সবাই স্মার্টফোনেই রয়েছে একটি গুরুত্ত্বপূর্ণ সিকিউরিটি চিপ।যেটা সম্পুর্ণ ডিভাইস এর  নিরাপত্তা পর্যবেক্ষন করে ও সেটা বাস্তবায়ন করে।গুগল এর নতুন পিক্সেল 3 তে আছে টাইটান এম” সিকিউরিটি চিপ এবং এই ফোনের মোবাইলগুলোতে থাকে প্রায় একই ধরনের সিকিউর এনক্লেভ পদ্ধতি।এছাড়াও অন্য সকল ডিভাইস গুলোতে ‘এ আর এম ট্রাস্ট জোন’ টেকনোলজি বেবহার করে তাদের ডিভাইস এর সুরক্ষার জন্য।যা মোবাইলে এর যাবতিয় সুরক্ষা প্রদান করে।

এখন আসা যাক এটা কিভাবে আপনার মোবাইল কে সুরক্ষা দেয় সেই বিষয়ে-

মুল ধারনা

এই চিপ গুলো মুলত মোবাইল এ ছোট ছোট কম্পিউটার এর মতো করে থাকে।এদের প্রত্যেকের আলাদা আলাদা প্রসেসর এবং নিজস্ব মেমোরি আছ এবং এরা নিজেদের ছোট ছোট অপারেটিং সিস্টেম  চালু করায়।আপনাদের মোবাইল এর ব্যাবহারকৃত  অপারেটিং সিস্টেম এবং ডিভাইস এ থাকা অ্যাপ্লিকেশন গুলোও এই সুরক্ষিত জায়গার কোনো কিছু জানতে পারবেনা।যার কারনে এটা টেম্পারিং এর হাত থেকে এই জায়গাকে সুরক্ষিত রাখে এবং এই জায়গা কে অনেক ধরনের কাজ করতে সাহায্য করে।

এটা একটা সম্পুর্ণ আলাদা প্রসেসর         

 

এই সব গুলো চিপ ই আলাদা আলাদা ভাবে কাজ করে।সেরকম গুগল এর নতুন পিক্সেল ফোন গুলোর ‘টাইটান এম’ সিকিউরিটি চিপ টি মোবাইল সি পি ইউ  থেকে আলাদা।কিন্ত এপল এর সিকিউর এনক্লেভ ‘এ আর এম এর ট্রাস্টজোন’ যদিও আলাদা চিপ নয়।এটি মুলত  আলাদা, ভিন্ন একটি চিপ যা প্রধান প্রসেসর এ বিল্ট ইন লাগানো থাকে।কিন্ত এটা প্রধান প্রসেসর এ বিল্ট ইন   থাকা সত্বেও এর আলাদা প্রসেসর এবং মেমোরি আছে।এটা বলা যায় একটা চিপ এর মধ্যে আরেকটি চিপ।

অন্যভাবে বলা যায়, এই সকল ‘টাইটান এম’ সিকিউর এনক্লেভ ট্রাস্টজোন মুলত আলাদা সহযোগী প্রসেসর।এদের নিজস্ব মেমোরি আছে এবং এরা নিজেদের অপারেটিং সিস্টেম চালু করে।এটা ডিভাইস এর অন্য সকল অংশ থেকে একদম আলাদা । অন্য কথায় বলা যায়,আপনার সম্পুর্ণ ডিভাইস টি যদি ভাইরাস দ্বারা  আক্রান্তও হয় এবং এই ভাইরাস টি যদি সব কিছুর উপর প্রভাব ও ফেলতে পারে তবুও এটি এই চিপ এ কোন প্রভাব ফেলতে পারবেনা।

এটা আপনার মোবাইল কে যেভাবে সুরক্ষা দেয়

আপনার মোবাইল এর সব তথ্য একটি তালাবদ্ধ ডিস্ক এ জমা থাকে এবং এই তালার চাবি থাকে এই সিকিউরিটি চিপ এ কঠিন সুরক্ষা এর মধ্যে । আপনি যখন ফেইস আই ডি/ফিংগারপ্রিন্ট/পিন দিয়ে আপনার মোবাইল আনলক করার চেস্টা করেন তখন এটি সেই চাবি দিয়ে ওই সকল তথ্য আপনার সামনে তুলে ধরে।

এই সিকিউরিটি পিন টি কখনো সিকিউরিটি চিপ থেকে হারায় না।কোন এ্যটাকার যদি অসংখ্য পিন দিয়েও এটা আনলক করার চেস্টা করে তাহলে এই চিপ টি  তার গতি কমিয়ে দেয় এবং এর প্রত্যেক বার চেষ্টার মধ্যে বিরতি নিয়ে আসে।এমনকি এ্যটাকার টি যদি প্রধান প্রসেসর কেও আয়ত্তে নিয়ে আসে তবুও এই সিকিউরিটি চিপ টি তার কাজের ধারা সীমিত করে দিবে।

একটি আই ফোন বা আই প্যাড এ তাদের সিকিউর এনক্লেভ এ তার সকল পিন/ফেস আই ডি জমা রাখে।এই ডিভাইস টি যদি কেও চুরিও করে এবং এর প্রধান অপারেটিং সিস্টেম  কে আয়ত্তেও নিয়ে আসে তবুও সে এই সিকিউরিটি সিস্টেম এ ঢুকতে পারবেনা।

গুগল এর ‘টাইটান এম চিপ’ টিও তার বিভিন্ন অ্যাপ এর মধ্যেকার গুরুত্ত্বপূর্ণ কার্যাবলি সুরক্ষিত রাখতে পারে।অ্যাপ গুলো  অ্যান্ড্রোয়েড 9 (Pie) এর নতুন “স্ট্রংবক্স কিস্টোর এ পি আই”এ তাদের সকল নিজস্ব তত্ব/পিন ‘টাইটান এম’ রাখতে পারে।এটা আপনি টাকা পাঠানোর মতো সেন্সিটিভ কাজ গুলো সহজেই করতে পারবেন।

এপল এর ফোনগুলোও একই রকম ভাবে কাজ করে।এপল পে সিকিউর এনক্লেভ ব্যাবহার করে,যার কারনে টাকা আদান-প্রদান এর সম্পুর্ণ তথ্য একটা সুরক্ষিত জায়গায় জমা থাকে।এছাড়া এপল তাদের অ্যাপ গুল কেও এর আওতায় রাখে, যাতে সেটিরও সুরক্ষা দেওয়া যায়।এটির সিকিউর এনক্লেভ তার নিজস্ব অ্যাপ টিকে চিহ্নিত করে রাখে যাতে এটিকে অন্য কোন মডিফাইড অ্যাপ এর বদলে ব্যাবহার করা না যায়।

এ আর এম ট্রাস্ট জোন ও একিরকম ভাবে কাজ করে।এটি প্রধান প্রসেসর এর একটি সুরক্ষিত জায়গা ব্যাবহার করে গুরুত্ত্বপূর্ণ অ্যাপ ব্যাবহার এর জন্নে।সিকিউরিটি তথ্য অ এর মধ্যে রাখা হয়।স্যামসাং  নক্স এর সিকিউরিটি সফটওয়্যার ও এর মধ্যেই চালু করা হয়। যে কারনে এটি  সিস্টেম এর অন্য সব থেকে আলাদা থাকে।গুগল পে ও ট্রাস্টজোন ব্যাবহার করে আরো বেশি সুরক্ষিত পেমেন্ট কার্ড তথ্য এর সুরক্ষার জন্য।

একটি পিক্সেল ফোন এ  টাইটান চিপ টি বুটলোডার কেও সুরক্ষিত রাখে।যখন আপনি পিক্সেল ফোন চালু করেন তখন টাইটান এম এটা নিসচয়তা করে যে সেটি সর্বশেষ হালনাগাদকৃত  এন্ড্রয়েডে চলছে।এ কারনে আপনার মোবাইল এ এক্সেস পাওয়া সত্বেও সে আপনার মোবাইল এর এন্ড্রয়েড ভার্সন ডাউনগ্রেড করতে পারবে না।এমনকি আপনার এন্ড্রয়েড ভার্সন আপডেট ও হবেনা আপনি পাসকোড না দেওয়া পর্যন্ত।তাই এ্যটাকার আপনার মোবাইল এর সফটওয়্যার এ মেলিসিয়াস ফার্মওয়ার ও দিতে পারবেনা।

আপনার মোবাইল এ কেনো সুরক্ষিত প্রসেসর দরকার ?

একটি সুরক্ষিত প্রসেসর আর আলাদা প্রসেসর ছাড়া আপনার ডিভাইসটি অনেক বেশি খোলামেলা হয়ে যায় এ্যটাক হওয়ার জন্য।এই সিকিউর চিপ টি সব গুরুত্বপুর্ন তথ্য কে আলাদা সুরক্ষিত জায়গায় রাখে।এতে আপনার মোবাইল হ্যাক হলেও ম্যালওয়্যার সেটাকে খুজে বের করতে পারবেনা।আপনি যদি মোবাইল ওয়ালেট ব্যাবহার করেন যেমনঃ এপল পে/গুগল পে/স্যামসাঙ পে তখন এটি এই সুরক্ষা দেয় যে কোন ম্যালওয়্যার সেটাকে এক্সেস করতে পারবেনা।’গুগল টাইটান এম’ এখন এমন একটা ব্যবস্থা চালু করতেছে যেখানে কেও আপনার মোবাইল এর বুটলোডার এ যেয়ে তা টাইটান এর ফার্মওয়ারের ডাউনগ্রেড করতে পারবে না এবং এই চিপ টি মোবাইল এর মেইন চিপ নষ্ট হয়ে গেলেও কোন রকম প্রভাবিত হবে না ও সব তথ্য কে সুরক্ষিত রাখবে।

এটি আপনাকে ব্যাকগ্রাউন্ডে সুরক্ষা দেয়

অনেক স্মার্টফোন ব্যাবহারকারী এই হার্ডওয়্যারের সম্পর্কে কিছু জানে না । এটা আপনাকে অনেক বেশী চিন্তা মুক্ত রাখে যখন আপনি আপনার হাতের স্মার্টফোনে  কার্ড এবং অনলাইন ব্যাংক এর তথ্য রাখেন।

এটা একটা খুব ভালো টেকনলোজি যা নিরবে কাজ করে যায় আপনার মোবাইল এর ডাটা সুরক্ষিত রাখতে । অনেক মডার্ন  স্মার্টফোন ইউজার তাদের মোবাইলে তাদের সব তথ্য জমা রাখেন । তাদের কেও এসব তথ্যের সুরক্ষা দিয়ে যায় এই চিপ।যে কারনে এই সুরক্ষার বিষয় নিয়ে আর চিন্তা করা লাগে না বললেই চলে।          

আশা করি অনেকটুকুই বুঝাতে এবং সহজ করে দিতে সক্ষম হয়েছি । আরো বিস্তারিত তথ্য জানতে আমাদের সাথে জুড়ে থাকুন ।