সম্প্রতি ওয়ালটন বাজারে নিয়ে এসেছে ৩জিবি র‍্যাম এবং ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সমৃদ্ধ তাদের নতুন ডিভাইস Primo R5+। আপনার আমার সাধ্য এর মধ্যে দারুন কর্মদক্ষতা সম্পন্ন এই ডিভাইসটিতে রয়েছে দারুন ক্যামেরা এবং হার্ডওয়্যার স্পেসিফিকেশন। আজকের আর্টিকেলে চলুন আমরা এই Primo R5+ ডিভাইসটি সম্পর্কে জানব বিস্তারিত, হ্যান্ডস অন রিভিউ।  ডিভাইসটির বাজার মূল্য ১০,৯৯৯ টাকা।

একনজরে Walton Primo R5+

  • স্টক এন্ড্রয়েড অরিও ৮.১ অপারেটিং সিস্টেম
  • ৪জি সাপোর্ট
  • ৩০০০ এমএএইচ লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারি
  • ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর
  • ১.৩ গিগাহার্জ কোয়াড কোর প্রসেসর
  • বিএসআই সেন্সর বিশিষ্ট ১৩ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা
  • বিএসআই সেন্সর বিশিষ্ট ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা
  • ৩জিবি র‍্যাম এবং ১৬ জিবি রম

স্মার্টফোনটির বক্স এর ভেতর যা যা পাওয়া যাবেঃ

  • Primo R5+ ডিভাইসটি
  • ইয়ারফোন
  • ব্যাক কভার
  • অ্যাডাপ্টার
  • ইউএসবি ক্যাবল
  • সেফটি ইন্সট্রাকশন
  • ওয়ারেন্টি কার্ড
  • অ্যাটাচড প্রোটেকশন পেপার

ইউজার ইন্টারফেস

ডিভাইসটিতে ব্যাবহার করা হয়েছে স্টক এন্ড্রয়েড অরিও ভার্সন।

কালার

যখনই কোন ফোনের প্রসঙ্গ আসে অবিচ্ছেদ্য ভাবে সেখানে অংশগ্রহন করে ফোন এর কালার। একটি ফোনের কালার ব্যাক্তির বাক্তিত্তকে ফুটিয়ে তোলে। আর সে কারনেই গ্রাহকের চাহিদা অনুসারে Primo R5+ ডিভাইসটি আসছে দুইটি আকর্ষণীয় কালার এর সাথে – ব্ল্যাক এবং ব্লু। এই দুটি কালার আপনার পছন্দের সঙ্গে তাল মিলিয়ে আপনাকে আপনার বাক্তিত্ত প্রকাশ এর সুযোগ করে দিবে।

প্রসেসর

Primo R5+ ডিভাইসটিতে রয়েছে ১.৩ গিগাহার্জ কোয়াড কোর প্রসেসর। অসাধারন এই ফোনটিতে আরো রয়েছে ৩ জিবি ডিডিআর৩ র‍্যাম এবং ১৬ জিবি রম। ডিভাইসটিতে ৬৪ জিবি পর্যন্ত মেমোরি কার্ড ব্যবহার করা যাবে। আর এই দারুন স্পেসিফিকেশন এর জন্য স্মার্টফোনটিতে যেকোনো ধরনের কাজ কোন প্রকার ঝামেলা ছাড়াই সম্পাদন করা যাবে। একই ভাবে মাল্টি-টস্কিং এও পাওয়া যাবে প্লাস পয়েন্ট। ধীরগতিহীন, আরামদায়ক কাজ করার জন্য তাই Primo R5+ স্মার্টফোনটি হবে আপনার জন্য এক নতুন অভিজ্ঞতা!

বেঞ্চমার্ক

ডিজাইন

স্মার্টফোনটির আলট্রা গ্লসি ডিজাইন এবং এর স্মুথ, শাইনি টপ গ্লাস স্মার্টফোনটির প্রিমিয়ামনেস বাড়িয়ে দিয়েছে শতগুণে। স্মার্টফোনটির লাইটওয়েট এবং কারভড ফিনিস ফোনটিকে করে তুলেছে আরো অনন্য। ডিসপ্লেটি নিজে থেকে স্ক্র্যাচ প্রোটেক্টিভ হলেও এতে আলাদা ভাবে ব্যাবহার করা হয়েছে একটি স্ক্র্যাচ প্রোটেকশন পেপার! যা ডিভাইসটিকে যেকোনো ধরনের স্ক্র্যাছ থেকে সুরক্ষা প্রদান করেবে।

ডিসপ্লে

এতে আছে ১৮ঃ৯ রেসিও সম্পন্ন ফুল ভিউ এইচডি আইপিএস ডিসপ্লে।  ইন সেল আইপিএস প্রযুক্তি হওয়ায় এটি ডিসপ্লেতে একটি ট্রেন্ডি লুক এনে দিবে। ডিভাইসটির অসাধারন ভাইব্র্যান্ট কালার ব্যাবহার এর খেলায় আপনি এক দারুন ভিউইং অভিজ্ঞতা পাবেন। মোট কথা এই দিক থেকে আপনি একদম চোখ ফেরাতে পারবেন না।

রিয়ার ক্যামেরা

সময়কে কখনই ফেরানো যায় না তবে সময়কে অবশ্যই সৃতির ফ্রেমে আটকে ফেলা যায়। আর জিবনের এমনই প্রতি মুহূর্তকে আটকে ফেলার জন্য (ক্যাপচার করার জন্য) Primo R5+ ডিভাইসটি আপনার কাছে বিশেষ গুরুত্ব রাখবে। এতে আছে বিএসআই সেন্সর বিশিষ্ট ১৩ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা, যা আপনার ফটোগ্রাফি স্কিলকেও একধাপ বাড়িয়ে দিতে পারবে। ডিভাইসটির রিয়ার প্যানেল এর এই ক্যামেরা মডিউলটি ফোকাসিং এর দিক দিয়েও ব্যাপক ফাস্ট। এছাড়াও অন্যসব ফোনের মত এতে দারুন দারুন ক্যামেরা ফিচারস তো থাকছেই! আর সাথে অবশ্যই থাকছে একটি শক্তিশালী এলইডি ফ্ল্যাশ।

ক্যামেরা ইউআই

পোট্রেট মোড

ডিভাইসটির ফ্রন্ট এবং রিয়ার প্যানেল এর ক্যামেরার পোট্রেট মোডে পাওয়া যাবে অসাধারন বোকেহ ইফেক্ট। যা পোট্রেট ফটোগ্রাফি এর সাবজেক্ট এর ব্যাকগ্রাউন্ডকে ব্লার করে দিয়ে সাবেজক্টকে অনেক আকর্ষণীয় করে তুলবে। এছাড়াও আরও অনেক ক্যামেরা ফিচারস আপনার ফটোগ্রাফি স্কিল বারাতে এবং দারুন দারুন সব ছবি আপনাকে উপহার দিতে বেশ ভালো ভুমিকা পালন করবে।

ফ্রন্ট ক্যামেরা

সেলফি প্রেমীদের জন্য ডিভাইসটির ফ্রন্ট প্যানেলে রয়েছে বিএসআই সেন্সর বিশিষ্ট ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা। অসাধারন সেলফি তোলার জন্য ক্যামেরাটির সাথে আছে একটি সফট এলইডি ফ্ল্যাশ। যার মাধ্যমে কম আলোতে ,এমনকি রাতেও আপনি নিতে পারবেন দারুন সেলফি। আর আপনার সেলফি ইম্প্রুভিং এর জন্য ফেস বিউটি ফাংশন আপনার ছবির আকর্ষণীয়তা বাড়াতে ব্যাপক সাহায্য করবে।

ফেইস আনলক ফিচার

ডিভাইসটির সিকিউরিটির জন্য আছে ফেইস আনলক প্রযুক্তি । এর ফ্রন্ট প্যানেলে থাকা ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরার কারনে ফেইস আনলক ফিচারটি খুব ভালোভাবে কাজ করবে। তাই Primo R5+ ডিভাইসে আপনার ফেইসই হবে আপনার সিকিউরিটি এবং প্রাইভেসি রক্ষার একমাত্র হাতিয়ার।

ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর

Primo R5+ ডিভাইসটিতে দেয়া হয়েছে একটি ফাস্ট ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর। আর এই ফিঙ্গারপ্রিন্ট লক প্রযুক্তি আপনার সব ধরনের পার্সোনাল ডাটার প্রাইভেসি রক্ষার্থে এবং ডিভাইসটি সেইফ এবং সিকিউর রাখার জন্য ব্যাবহার করতে পারেন।

স্পেশাল ফিচার গুলো (ছবিতে)

এই ছিল Walton Primo R5+ ডিভাইসটির বিস্তারিত রিভিউ। আশা করি এই স্মার্টফোনটি সম্পর্কে বিস্তারিত যাবতীয় তথ্য এই আর্টিকেল থেকে জানতে পেরেছেন। আর আপনার কোন মূল্যবান জিজ্ঞাসা বা মতামত থাকলে নিচে জানাতে ভুলবেন না। তাছাড়াও আরও বিস্তারিত জানতে ঘুরে আসতে পারেন ওয়ালটন এর যেকোনো শো-রুম বা স্মার্টজোন।

Please follow and like us:
20